আসুন জেনে নিন কোষ্ঠকাঠিন্য কি কোলন ক্যানসারের লক্ষণ?

আসুন জেনে নিন কোষ্ঠকাঠিন্য কি কোলন ক্যানসারের লক্ষণ?
Flickr

ব্যস্ত জীবন, অসময়ে খাবার, অপর্যাপ্ত ঘুম—সব মিলিয়ে আমাদের স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়ার সময় নেই। অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপনের ফলে শরীরে শিকড় গ্রাস করছে অনেক মারণ রোগ। কোলন ক্যান্সার তার মধ্যে একটি।

এই স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দেয় যখন কোলনের কোষগুলি অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পায়। অন্ত্রে মাংসল অংশের ক্রনিক বৃদ্ধি এই রোগের অন্যতম লক্ষণ। অতিরিক্ত মদ্যপান, অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া, ধূমপান ইত্যাদি কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়।

একবার এই ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি তাদের পঞ্চাশের দশকের লোকেদের মধ্যে বেশি ছিল, এই প্রবণতা সম্প্রতি পরিবর্তিত হচ্ছে। তরুণরাও কোলন ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়। কিছু লক্ষণ জানা থাকলে প্রাথমিক পর্যায়ে চিকিৎসা করা যায়। জেনে নিন কোলন ক্যান্সারের সাধারণ লক্ষণগুলো।

কোলন ক্যান্সারের লক্ষণগুলো

দীর্ঘস্থায়ী কোষ্ঠকাঠিন্য বা দীর্ঘায়িত ডায়রিয়া সম্পর্কে সচেতন থাকুন - যদি আপনার এই দুটি সমস্যা থাকে। এগুলো কোলন ক্যান্সারের প্রাথমিক লক্ষণ বা লক্ষণ। এই ক্যান্সার যখন শরীরে শিকড় গেড়ে বসে তখন প্রচণ্ড পেটে ব্যথা করে। অ্যানিমিয়াও হঠাৎ আক্রমণ করতে পারে।

হঠাৎ ওজন কমে গেলেও সাবধান। কোলন ক্যান্সারের ক্ষেত্রে এই ধরনের উপসর্গ দেখা দেয়। মলত্যাগের সময় যত্ন নিন। মলে রক্ত পড়লে দ্রুত চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করুন। কখনও কখনও এই লক্ষণগুলি বমি দ্বারা অনুষঙ্গী হয়। এ ছাড়া পেটে অস্বস্তি (গ্যাস, পেটে ব্যথা), ক্ষুধামন্দা, শারীরিক দুর্বলতা ইত্যাদি উপসর্গও দেখা যায়।

করণীয় কী?

স্বাস্থ্যকর খাবার, নিয়মিত ব্যায়াম, অ্যালকোহল ত্যাগ এবং ধূমপানের অভ্যাস ত্যাগ আপনাকে এই সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে সাহায্য করতে পারে। প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় তাজা ফল, সবজি, বিট পাল্প ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত করুন। ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার এ ক্ষেত্রে আদর্শ।


রেফারেন্স: dhakamail.com

পরবর্তী পোস্ট পূর্ববর্তী পোস্ট
মন্তব্য নেই
মন্তব্য যোগ করুন
comment url