নারকেল তেলের যে পাঁচটি গুন আপনার চুলের সমস্যার সমাধান করতে পারে

নারকেল তেলের যে পাঁচটি গুন আপনার চুলের সমস্যার সমাধান করতে পারে
  • চুলের যত্নে নারকেল তেল কয়েক শতাব্দী ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে
  • নারকেল তেল মাথার ত্বকের শুষ্কতা কমাতে সাহায্য করে যা খুশকি দূর করে
  • নারকেল তেলের নিয়মিত ব্যবহার চুল পড়া কমায় এবং চুলের বৃদ্ধি বাড়ায়
  • নারকেল তেলে ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে যা চুলের ফলিকলকে পুষ্ট করে
  • আপনি যদি নিয়মিত নারকেল তেল ব্যবহার করেন তবে এটি আপনার চুলের আর্দ্রতা ধরে রাখে এবং আপনার চুলকে সুন্দর দেখাবে

চুলের জন্য সৌন্দর্য বিলাসিতা যুগ যুগ ধরে চুলের স্টাইলিংয়ের জন্য বিভিন্ন রাসায়নিক পণ্য ব্যবহার করে আসছে, যদিও এই পদার্থগুলি চুলের বৃদ্ধির জন্য ক্ষতিকর। কিন্তু চুলের যত্নের পণ্যের মূল লক্ষ্য হওয়া উচিত চুলের স্বাভাবিক বৃদ্ধি নিশ্চিত করা এবং চুলকে মসৃণ, নরম এবং সিল্কি করা। সুতরাং, যদি এই পণ্যগুলির দীর্ঘমেয়াদী ব্যবহার আপনার চুলের জন্য ক্ষতিকারক হয় তবে কেন দামি পণ্য কিনে নষ্ট করবেন?

বরং চুলের জন্য নারকেল তেলের ওপর নির্ভর করা উচিত। চুলে নারকেল তেল লাগানোর অসংখ্য উপকারিতা রয়েছে। এটি ভিটামিন এবং খনিজ পদার্থ সমৃদ্ধ আদর্শ তেল। এই কারণে, যুগ যুগ ধরে চুলের সমস্যার সমাধান এর জন্য একটি ঘরোয়া প্রতিকার হিসাবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

নারকেল তেল কেবল চুলের বৃদ্ধি নিশ্চিত করতে নয়, চুল পড়া এবং খুশকিসহ বিভিন্ন সমস্যার চিকিৎসায়ও ব্যবহৃত হয়। চুলের এমন কোন সমস্যা নেই যা নারকেল তেল দূর করতে পারে না। সুতরাং, যদি আপনি জানতে চান কিভাবে নারকেল তেল ব্যবহার করে শুষ্ক চুল এবং অন্যান্য চুলের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়, তাহলে আমাদের সাথেই থাকুন।

১/ খুশকির বিরুদ্ধে লড়াই:

খুশকি মাথার ত্বকের অন্যতম প্রধান সমস্যা। খুশকির পিছনে প্রধান কারণগুলি হল:

  • আপনার মাথার ত্বক সঠিকভাবে পরিষ্কার না করা
  • ক্ষতিকর পদার্থ দ্বারা তৈরি রাসায়নিক দ্রব্য ব্যবহার
  • আপনার মাথার তালু এবং চুলে পর্যাপ্ত তেল না দেওয়া

নারকেল তেলের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা খুশকির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সহায়তা করে। আপনি লেবুর রসের মতো অন্য কোনো প্রাকৃতিক উপাদানের সঙ্গে নারকেল তেল মিশিয়ে খুশকির বিরুদ্ধে আপনার নিজের ঘরে তৈরি প্যাক তৈরি করতে পারেন। লেবু আপনার মাথার ত্বকের ময়লা এবং অতিরিক্ত তেল দূর করতে সাহায্য করে।

পদ্ধতি:

  • দুই থেকে তিন টেবিল চামচ নারকেল তেল নিয়ে গরম করুন
  • তারপর তেলে এক টেবিল চামচ লেবুর রস যোগ করুন
  • আপনার মাথার ত্বকে মিশ্রণটি আলতো করে ম্যাসাজ করুন
  • হালকা শ্যাম্পু দিয়ে ধোয়ার আগে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন

২/ চুল পড়া রোধ করতে

চুলে প্রোটিনের অভাবের কারণে, চুলের ফলিকলগুলি নরম, ভঙ্গুর হয়ে যায় এবং ভাঙতে শুরু করে। চুল পড়ার জন্য নারকেল তেল একটি প্রাকৃতিক ঘরোয়া প্রতিকার। এতে লরিক এসিড থাকে যা চুলে ভালোভাবে শোষিত হয়। ফলে চুল আবার প্রোটিন ফিরে পায় এবং চুল মজবুত হয়। তাই নারকেল তেলের নিয়মিত ব্যবহার চুল পড়া অনেকটাই কমিয়ে দেয়।

৩/ একটি প্রাকৃতিক গভীর কন্ডিশনার হিসাবে কাজ করে

চুলের বৃদ্ধি বজায় রাখতে গভীর কন্ডিশনিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নারকেল তেল প্রাকৃতিক গভীর কন্ডিশনার হিসেবে দারুণ কাজ করে। এতে রয়েছে ফ্যাটি অ্যাসিড যা চুলের ফলিকলকে পুষ্ট করে।

ধোয়ার কয়েক ঘণ্টা আগে নারকেল তেল দিয়ে মাথা থেকে পা পর্যন্ত চুল ম্যাসাজ করে ডিপ কন্ডিশনিং করা যায়।

৪/ চুল পুষ্ট করতে

চুলের বৃদ্ধি বাড়াতে নারকেল তেল একটি প্রাকৃতিক উপাদান। নারকেল তেলের ফ্যাটি অ্যাসিড এবং ভিটামিন চুলের গভীরে পৌঁছায় এবং অতিরিক্ত সিবুম উৎপাদন বন্ধ করে। ফলে চুল মজবুত হয়। অতএব, আপনার চুল আরও আকর্ষণীয় হয়ে ওঠে।

৫/ শুষ্কতা দূর করতে

রুক্ষ চুলের শুষ্কতা দূর করতে নারকেল তেল ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে। খুব অল্প পরিমাণে নারকেল তেল মাথার ত্বকে লাগান এবং এটি আপনার চুলে ভালভাবে ম্যাসাজ করুন। এটি করার মাধ্যমে, আপনি তাত্ক্ষণিকভাবে শুষ্কতা দূর করতে এবং চুলের আর্দ্রতা ধরে রাখতে পারেন।

নারকেল তেল আপনার চুলের জন্য অমৃতের মতো। ঘরে তৈরি চুল পড়ার সমাধান বা সাশ্রয়ী মূল্যের গভীর কন্ডিশনিং- এটি সব ক্ষেত্রে সমানভাবে কার্যকর। যাইহোক, আপনাকে এটি নিয়মিত ব্যবহার করতে হবে। সুতরাং, নিয়মিত চুলের জন্য নারকেল তেল ব্যবহার করুন, এবং ধীরে ধীরে আপনার চুল ঘন, সিল্কি এবং শক্তিশালী হয়ে উঠবে।

রেফারেন্সঃ

femina.in

shajgoj.com

bengali.news18.com

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url